Connect with us

Bangla Serial

Neel Trina: একা হাতেই ভেজেছেন ৬০টা লুচি, সারাবছর ছোট পোশাকে থাকলেও লক্ষ্মীপুজোয় তৃণা রাঁধলেন নীলের পছন্দের ভোগ! ‘লক্ষ্মী বৌ’, বলছেন নেটিজেনরা

Published

on

বাংলা টেলিভিশনের এক জনপ্রিয় অফস্ক্রিন জুটি হল অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য এবং অভিনেত্রী তৃনা সেন। তবে দুজনকে টিভির পর্দায় এখনো একসাথে জুটি বাঁধতে দেখা যায়নি। তবে নেট মাধ্যমে তাদের দুজনের জুটির ভক্ত সংখ্যা অনেক। একে অপরের সঙ্গে বহু ছবি এবং ভিডিও তারা তাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে থাকেন যেখানে প্রশংসায় ভড়ান তাদের অনুরাগীরা। ২০২১ সালে তাদের দুজনের বিয়ে হয়।এবার তাদের বাড়িরই লক্ষ্মীপুজো দেখা গেল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রসঙ্গত তাদের বিয়ের পর এটি তাদের দ্বিতীয় বছরের লক্ষ্মীপূজো। একটি সংবাদ মাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেন, যে তার শ্বশুরবাড়ির পুজো সকালে সেরে তারপরে বিকেল বেলায় বাপের বাড়ির লক্ষ্মীপুজোতে যাবেন। তিনি বলেন তাদের দুই বাড়ির লক্ষ্মীপূজো পুরো আলাদা নীলের বাড়িতে মা লক্ষ্মীর পুজো নারায়ণের সঙ্গে হয় এবং ভোগ হিসেবে লুচি, তরকারি, চাটনি এইসব দেওয়া হয়। অন্যদিকে তৃণার বাড়িতে খিচুড়ি ভোগ দেওয়া হয় সেটি সন্ধ্যেবেলায় হয়ে থাকে।

সকাল সকাল উঠেই তৃনা শশুর বাড়ির লক্ষ্মী পুজোর গোজগাছ শুরু করে দিয়েছে। সারা বছর যতই ওয়েস্টার্ন ড্রেস পরুন না কেন এই দিন লক্ষ্মীপূজো উপলক্ষে সুন্দর একটি নীল রঙের শাড়ি পড়ে পুরো ঘরের লক্ষী সেজেছিলেন অভিনেত্রী। তার পাশেই নীল সাদা পাঞ্জাবি পাজামায় দেখা গেলো নীলকে।সেই সঙ্গে নিজের হাতে নীলের পছন্দমত ভোগ ও রান্না করেছিলেন।


সেইসব নিজের মুখে বলেন অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য। নিজের হাতে ঠাকুরের বেদি সাজানো থেকে শুরু করে ভোগ রান্না, আলপনা দেওয়া তারপরে অঞ্জলি দেওয়া সবকিছুই করেছেন অভিনেত্রী, সেই সঙ্গে অভিনেতার মায়ের সঙ্গ দিয়েছেন। এইসব শুনে নেটিজেনরা প্রশংসা করেছেন অভিনেত্রীর। যে সারা বছর যতই নিজেকে বিদেশি জামা কাপড়ে সাজিয়ে তুলুন না কেন বাঙালির ঐতিহ্য এখনো বজায় রেখেছেন অভিনেত্রী। বাড়িতে লক্ষ্মী মায়ের আরাধনা শাড়ি পড়ে সুন্দর করেই করেছেন।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending