Connect with us

Bangla Serial

সকাল সকাল সুখবর! দর্শকদের আন্দোলনের জেরে স্বর্ণেন্দু সমাদ্দার ফিরিয়ে আনছেন ছোট দাদু আর ছোট ঠাম্মিকে! ‘এবার উর্মির পাগলামো সামাল দিতে পারবে এরা’, স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন নেটিজেনরা

Published

on

বর্তমানে জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয় নিয়ে তিতিবিরক্ত দর্শকরা। এখানে যেভাবে উর্মি চরিত্রটাকে দেখানো হচ্ছে যে সে সর্বগুণ সম্পন্ন এবং সবকিছু সে ঠিক মনে করে করে করেও ফেলে। এই জিনিসটা দর্শকদের মনে ভীষণ বিরক্তির উদ্রেক করছে এবং পাড়া-প্রতিবেশীদের বারংবার সরকার বাড়িতে এসে কথা শুনিয়ে যাওয়াটাও নিতে পারছেন না দর্শকরা।

যে ছেলেটা বিয়ে ভেঙে দিয়ে চলে গেল বাবা-মায়ের সঙ্গে সে যতই মুমু দিদিকে ভালোবাসুক সে আশীর্বাদ একদিন ঐভাবে বেরিয়ে গিয়ে এবং কোন প্রতিবাদ না করে অবশ্যই ভুল কাজ করেছিল।সেই জিনিসটা উর্মি দেখল না কেবল তার একটাই কথা সে দুটো মানুষের ভালোবাসাকে পরিণতি দিয়েছে বাড়ির কাউকে কিছু না বলে এমন টুকাইকেও কিছু কাউকে কিছু না বলে দুজনকে মন্দিরে নিয়ে গিয়ে লুকিয়ে বিয়ে করিয়ে।যে থাপ্পড়টা মুমুদিদির মা মুমু দিদিকে মেরেছিল সেটা ওর গালে পড়লে ওর মাথায় বুদ্ধিটা আসতো বলে দাবি দর্শকদের।

সে যে ভুল সেটা কিছুতেই বুঝে না সমানে তর্ক করে যাচ্ছে যে সে যা করেছে ঠিক করেছে। দুটো ভালোবাসার মানুষকে মিলিয়ে দিয়েছে। এখন দর্শকরা প্রশ্ন করছে যদি সে ঠিক কাজ করে থাকে তাহলে বাড়ির কাউকে বলতে পারল না কেন? তারজন্যে বারংবার সরকার বাড়িকে কথা শুনতে হবে কেন? গতকাল টুকাই উর্মিকে যা যা বলেছে সব কিছু ঠিকঠাক বলেছে বলে মত অধিকাংশ দর্শকদের।এরপরেও উর্মির কিছু অন্ধ ভক্ত রয়েছে যারা বলছে যে উর্মি ঠিক করেছে তাদের উদ্দেশ্যে এই পথের ভক্তদের প্রশ্ন যে এই একই কাজ যদি আপনাদের বাড়ীর বউ আপনাদের বাড়ির মেয়ের সঙ্গে করত আপনারা কি মেনে নিতেন? তখন নিশ্চয়ই বাড়ির বউ এর ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে থেকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বার করে দিতেন।

এবারে উর্মির পাশে কেউ নেই এমনকি টুকাই খুব রেগে গেছে তাকে না বলে এই কাজটা করার জন্য।এই কাজটা যদি টুকাই করত তাহলে উর্মি মাথা খেয়ে ফেলত।এখন ভুল কাজ করার পরে ‘সরি,আমি কান ধরে উঠবোস করছি, আমাকে মারো, বকো’ এইসব বলে কোনো লাভ নেই।প্রতিবার উর্মি প্রমিস করবে টুকাই কে যে আমি তোমাকে না বলে কিছু করবোনা আর ঠিক এক কাজ করবে বারবার। টুকাই উর্মিকে পাগলের মত ভালবাসে কিন্তু সেই ভালোবাসার মর্যাদা দিচ্ছে কি?

তাই এবার সরকার বাড়ির হাল ধরতে ধারাবাহিকে ফিরছেন দুই জনপ্রিয় চরিত্র।দীর্ঘদিন ধরে তাদের আমরা দেখতে পাইনি কিন্তু দর্শকরা বারংবার আন্দোলন করে আসছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায় যে তাদেরকে ফিরিয়ে আনুন।এই দুজনের মধ্যে একজন সোশ্যাল মিডিয়ায় দুঃখ করে বলে ফেলেছিলাম যে তাকে কেন হঠাৎ করে বাদ দেওয়া হলো তিনি জানেন না। তবে খুশির খবর প্রোডাকশন হাউস তাদেরকে ফিরিয়ে আনছেন সসম্মানে। আর কয়েক ঘন্টার মধ্যেই তাদের দেখা যাবে নতুন এপিসোডে।

আপনারা ঠিকই ধরেছেন। আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয় তে ফিরে আসছে ছোট দাদু আর ছোট ঠাম্মি।ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায়ের সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছুদিন আগে খুব প্রকাশ করেছিলেন যে তিনি জানেন না তাকে কেন বাদ দেওয়া হলো হঠাৎ করে আর মানসী সিনহা অংশুমান প্রত্যুষের সিনেমার জন্য লন্ডনে গেছিলেন এবং পরবর্তীকালে ফিরে এসে নিজের সিনেমা পরিচালনার কাজে ব্যস্ত ছিলেন বলে শুটিংয়ে সময় দিতে পারেননি। এই তার বক্তব্য হয়তো তিনি ছিলেন না বলেই ছোট দাদুকে রাখা হয়নি। যাই হোক,সব সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে। ছোট দাদু আর ছোট ঠাম্মি চলে আসছে এই পথে আর তারা এসেই উর্মির পাগলামো ঠিক করতে পারবেন বলে মনে করছেন দর্শকরা।

এর আগে অভিযোগ উঠেছিল যে প্রোডাকশন হাউস থেকে কলাকুশলীদের টাকা দিতে দেরি হয় এবং একজনের এক লক্ষ টাকা পারিশ্রমিক বাকি। সেইজন্য হয়তো এই দুজন ছেড়ে চলে গেছেন তবে স্বর্ণেন্দু সমাদ্দার জানিয়েছেন যে এই সব ভুয়ো কথা। এরকম কিছুই ঘটেনি।তখন দরকার ছিল না তাই দুজনকে রাখা হয়নি এখন গল্পের প্রয়োজনে দুজন ফিরে আসছেন।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending