হেসে খেলে ১০০ পর্ব পার, গ্র্যান্ড সেলিব্রেশন লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টারের সেটে, তবুও মন ফাগুন টিআরপিতে বেগুন ভাজা করে দেওয়ায় একটু মন খারাপ দাস পরিবারের – Tolly Tales
Connect with us

Bangla Serial

হেসে খেলে ১০০ পর্ব পার, গ্র্যান্ড সেলিব্রেশন লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টারের সেটে, তবুও মন ফাগুন টিআরপিতে বেগুন ভাজা করে দেওয়ায় একটু মন খারাপ দাস পরিবারের

Published

on

খুব বেশি সময় হয়নি লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার সম্প্রচার শুরু হওয়া। এর মধ্যে খুব অল্পসময়ের দর্শকদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এই ধারাবাহিকটি। তার অন্যতম ইউএসপি হলেন অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্য।

দীর্ঘদিন ধরে টলিউডে রাজত্ব করছেন অপরাজিতা। সিনেমার পাশাপাশি এবার ধারাবাহিকেও একইভাবে দাপট চালিয়ে যাচ্ছেন নিজের। নায়িকার গুণমুগ্ধের সংখ্যা গুনে বলা যাবে না।

এর মধ্যে হাসি-কান্নায় সম্পূর্ণ হলো লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার ধারাবাহিকের ১০০ পর্ব। টালিগঞ্জের ১৩ নম্বর স্টুডিওতে শুটিংয়ে ব্যস্ত দেবশংকর হালদার এবং অপরাজিতা। কাঁদতে কাঁদতে শট শেষ হতেই হাসির ফোয়ারা ছুটছে অপরাজিতা মুখ দিয়ে।

ধারাবাহিকের গল্প একেবারেই আলাদা অন্যান্য অনেক ধারাবাহিকের থেকে। দোকান আর বাড়ি সব মিলিয়ে লক্ষ্মী কাকিমার সংসার। যে সব সামলে ১০০ পর্ব পার করে ফেলল এই ধারাবাহিক। তাই উদযাপন তো করতেই হবে।

ফ্লোরে এলো বড় চকলেট কেক। তার উপরে লক্ষ্মী কাকিমার ছবি। কারণ তিনিই তো সংসারের লক্ষ্মী। অন্তত দেবব্রতর কাছে তিনি লক্ষ্মী হয়ে উঠেছেন। একপাশে বৌমা আর আরেক পাশে নিজের স্বামীকে নিয়ে কেক কাটলেন লক্ষ্মী ওরফে অপরাজিতা।

একে অপরকে খাইয়ে দিলেন সঙ্গে গলা জড়াজড়ি। ১০০ পর্ব পার করে গেলেও একই রকম উদ্দীপনা বজায় রয়েছে, জানালেন অপরাজিতা। প্রথম দিনের গান চালানো থেকে দেবুদা জীবনে এই সমস্যা, সব এক রয়েছে। চার বছর পরে আবার ধারাবাহিকে অভিনয়ে ফিরে এসেছেন অপরাজিতা। সঙ্গে অভিনেতা হিসেবে রয়েছেন দেবশংকর হালদার। অপরাজিতা বললেন প্রতিদিন একটা করে ওয়ার্কশপ হয়ে যাচ্ছে নায়িকার।

অন্যদিকে টিআরপি বিষয়ে নায়িকা বললেন ২৫ বছর ধরে অভিনয় কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। তাই টিআরপি দিয়ে যদি তাঁর রেটিং করা হয় তাহলে কিছু বলার নেই নায়িকার। কিন্তু চ্যানেলের জন্যে টিআরপি খুবই গুরুত্বপূর্ণ সেটা মানতে রাজি তিনি।

অন্যদিকে বৌমা শার্লি মোদক জানালেন এতগুলো পর্ব একসঙ্গে অপরাজিতার সঙ্গে কাজ করলেন। একটা অন্যরকম বন্ধুত্বের সম্পর্ক হয়ে গিয়েছে দুজনের। এই স্টুডিও এখন তাঁদের বাড়ি হয়ে গেছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Aparajita Adhya (@adhyaaparajita)

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Trending