Connect with us

Bangla Serial

Mithai-Sid: মনের মিল যেমন আছে তেমনই আছে স্বভাবের মিল! মিঠাই-উচ্ছে বাবুর এই বদ অভ্যাসের কথা জানলে আপনারাও বলবেন “মেড ফর ইচ আদার”

Published

on

জি বাংলার মিঠাই রানী কতটা জনপ্রিয় সেটা আলাদা করে লিখে বোঝানোর প্রয়োজন পড়ে না। মিঠাই এবং উচ্ছে বাবুর প্রেম, খুনসুটি, ঝগড়া সব কিছু মিলিয়ে দর্শকদের চোখে সেরা এই ধারাবাহিক এখন পর্যন্ত। নতুন মুখ হিসাবে এই ধারাবাহিকের মধ্যে দিয়ে যেমন উঠে এসেছে আদৃত রায় তেমনই নতুন না হলেও এই প্রথম মুখ্য চরিত্রের অভিনয় করে উঠে এসেছে অভিনেত্রী সৌমীতৃষা কুণ্ডু।

দর্শকদের কাছে দুজনের জুটি সেরার সেরা হয়ে উঠেছে। ধারাবাহিকের শুরু থেকে দুজনের দুষ্টু মিষ্টি সম্পর্ক মন ভরে দিয়েছে দর্শকের। যদিও আগে মিষ্টি বিক্রেতা মিঠাইয়ের সঙ্গে উচ্ছে বাবুর সম্পর্কটা উচ্ছের মধ্যে তেতো ছিল, তবে এখন সেটা মাখো মাখো প্রেমে পরিণত হয়েছে।

যদিও অনস্ক্রিন দুজনের কেমিস্ট্রি ১০০ তে ১০০ পেলেও অফস্ক্রিন দুজনের মধ্যে কথা বলা বন্ধ। আসলে মাঝখানে গুজব ছড়িয়ে ছিল যে মিঠাই আর উচ্ছে বাবুর মধ্যে বাস্তবে ঝগড়া হয়েছে। পরে জানা যায় এটা কোন গুজব নয় বরঞ্চ এটা সত্যি আর সেটা এই দুই নায়ক নায়িকা নিজেই স্বীকার করে নিয়েছে। মনে করা হচ্ছিল এর জন্য দ্বিতীয় ব্যক্তি দায়ী।

আসলে অনেকেই মনে করত পর্দার সাথে বাস্তবেও উচ্ছে বাবাকে পছন্দ করে মিঠাই। কিন্তু নন্দা এসে মাঝ খানে তৃতীয় ব্যক্তি হিসেবে প্রবেশ করে গেছে যার ফলে দুজনের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। যদিও আদৃত বা সৌমী দুজনেই সেটা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে এবং বলেছে কাজের জন্যে ঝামেলা হয়েছিল।

তবে দর্শকরা একটি নতুন ভিডিও থেকে দুজনের মনের মিল খুঁজে পেল। মনের মিল বললে ভুল হবে তার পাশাপাশি স্বভাবের মিল খুঁজে পাওয়া গেছে এই দুজনের মধ্যে। ভিডিওতে দেখা গেছে দুজনের একটি একই রকম বদ অভ্যাস আছে আর সেটা হলো দাঁত দিয়ে নখ কাটা। হ্যাঁ, শুটিংয়ের ফাঁকে দুজনেই মাঝে মাঝে এই কুকর্মটি করে ফেলে। আর তেমনই একটি ভিডিও এবার ভাইরাল হয়ে গেছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে আদৃত রাতুলের সঙ্গে গল্প করতে করতে দাঁত দিয়ে নখ কাটছে আর অন্যদিকে মিঠাই শুটিংয়ের ফাঁকে দাঁত দিয়ে নখ কাটছে। পাশে রয়েছে আদৃতও। আর এই ভিডিও দেখে অভিভূত ভক্তরা। তারা বলছে আসলে তো দুজন দুজনকে সত্যিকারের ভালবাসে। তাই তো মনের মিলের সাথে সাথে স্বভাবের মিল খুঁজে পাওয়া গেছে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending