এখনো মেটেনি আদৃতের সঙ্গে ব্যক্তিগত ঝামেলা, শুটিংয়ের পরে পিপি আর তোর্সাকে নিয়ে কফি খেতে চলে গেল মিঠাই রানী, বাদ গেল দিদিয়া! ‘কবে একসঙ্গে দেখতে পাবো তোমাদের?’, অপেক্ষায় নেটিজেনরা – Tolly Tales
Connect with us

Bangla Serial

এখনো মেটেনি আদৃতের সঙ্গে ব্যক্তিগত ঝামেলা, শুটিংয়ের পরে পিপি আর তোর্সাকে নিয়ে কফি খেতে চলে গেল মিঠাই রানী, বাদ গেল দিদিয়া! ‘কবে একসঙ্গে দেখতে পাবো তোমাদের?’, অপেক্ষায় নেটিজেনরা

Published

on

সে যে ভীষণ মিষ্টি তাকে চিনি চিনি গানটা শুনলেই মনে একটা অন্যরকম আনন্দ ভরে ওঠে মিঠাই ভক্তদের। সত্যি কথা বলতে এত মিলেমিশে থাকা ফ্যামিলি ড্রামা বাংলা ধারাবাহিকের জগতে বর্তমানে আর নেই। হ্যাঁ আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয় অথবা মন ফাগুন রয়েছে কিন্তু সেখানে পরিবারের মধ্যে ঝামেলা হয়, খুনজখম তো লেগেই আছে। মিঠাই পরিবারে নিজেদের মধ্যে কিন্তু ঝামেলা হয় না একদমই। কলকাতার বুকে এরকম যৌথ পরিবার আজকালকার দিনে প্রায় দেখাই যায় না তাই মানুষ মিঠাই মন দিয়ে দেখে মনোহরার মানুষগুলোর বন্ডিং দেখার জন্য।

তবে পর্দায় বন্ডিং যতই ভালো দেখাক পর্দার পিছনে কিন্তু অন্য গল্প। শুরুর দিকে মোদক পরিবারের সকল সদস্যদের মধ্যে অফস্ক্রিনেও ভীষণ ভালো সম্পর্ক ছিল যার প্রভাব পড়তো instagram রিলগুলোতে। একসঙ্গে রিল ভিডিও করত দিদিয়া মিঠাই। আবার নীপা রানীও ছবি দিত দিদিয়ার সঙ্গে। এছাড়া তোর্সা মিঠাই একসঙ্গে ভিডিও করতো। ধ্রুব মিঠাই নাচ করত। সব মিলিয়ে ভীষণ হাসিখুশি ছিল মোদক পরিবারের সকলে।

কিন্তু বিগত কয়েক মাসে ঘনিয়ে উঠেছে সমস্যা। আদ্রিতের জন্মদিনের কিছু সময় আগে থেকে প্রকট হয়ে উঠেছে যে অফস্ক্রিনে মিঠাইয়ের সঙ্গে সকলের বন্ডিংটা ভালো নেই। অন্যান্য সকলের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকলেও নন্দা এবং সিডের সঙ্গে মিঠাইয়ের ব্যক্তিগত সম্পর্ক একদম ভাল নয়। উঠে এসেছে ত্রিকোণ প্রেমের কাহিনী।

বাতাসে ছড়িয়েছে একটা গল্প যে মিঠাই রানী সিডকে পছন্দ করতেন কিন্তু সিড আবার পছন্দ করে দিদিয়াকে। আবার সিডের জন্মদিনে একমাত্র দিদিয়াকে দেখা গেছিল বিশেষ পার্টিতে সিডের সঙ্গে। যেখানে কৌশাম্বীর নিজের দাদাও ছিল।তারপর কৌশাম্বীকে নিজের বেস্ট ফ্রেন্ড বলে দাবি করেছিল আদৃত কিন্তু তার কোন আর প্রমাণ সোশ্যাল মিডিয়ায় পাওয়া যায়নি। তাই সকলে মনে করেছিলেন যে দিদিয়াকে নোংরা আক্রমণের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য আদৃত কাজটা করেছিল।

এগুলোই দেখে মিঠাই এর খারাপ লেগেছে সেই জন্য জন্মদিনে মিঠাই একটা উইশ করেনি উচ্ছে বাবুকে।সে খুব ভালো করে জানত এটা নিয়ে জল ঘোলা হবে সোশ্যাল মিডিয়ায় তবুও নিজের জেদে সে অনড় ছিল।‌ আর এরপর দেখা গেল শুটিংয়ের পরে সে কফি খেতে গেছে মিঠাই পরিবারের সকল সদস্যকে নিয়ে। যেখানে পিপি ছিল তোর্সা ছিল শ্রী ছিল দাদাই ঠাম্মি সকলে ছিল। শুধু ছিল না নন্দা আর আদৃত। এর থেকে কি বোঝা যায় যে তাদের মধ্যে ব্যক্তিগত সম্পর্কটা এখনো ঠিক হয়নি। শুটিং এর খাতিরে এক প্রেমে কাজ করছেন তারা তা বাদে এখনো কিন্তু জল ঘোলা হয়ে রয়েছে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Trending