Connect with us

Bangla Serial

Mithai: বারবার একই ছদ্মবেশ, পুলিশকে কাজ করতে না দিয়ে নিজেরাই তদন্ত করা! মিঠাইতে গল্প ভীষণ একঘেয়ে হয়ে যাচ্ছে, টিআরপি কেন কমবে না? প্রশ্ন করছেন ভক্তরাই

Published

on

গতকাল মিঠাই প্রচন্ড ধাক্কা খেয়েছে টিআরপি রেটিংয়ে। ৬.৬ এ পঞ্চম স্থান পেয়েছে যেটা সাম্প্রতিক ইতিহাসে হয়নি। সেই কারণে মিঠাই ভক্তদের এমনিতেই মন খারাপ কিন্তু কলাকুশলীদের দেখে অবশ্য সেটা বোঝা যাচ্ছে না। ভক্তরা তাই বলছেন যে চিন্তা শুধু তাদের কলাকুশলীরা তো মাস গেলে টাকা পায় তাই তাদের কোন ইমোশন জড়িয়েই নেই ধারাবাহিকের সঙ্গে।

তবে এই মনোহরা ছাড়া হওয়া তারপর প্রমীলা লাহা, আদিত্য আগারওয়াল সবমিলিয়ে দর্শকদের এই গল্প একদম ভালো লাগেনি তার প্রমাণ হচ্ছে টিআরপি রেটিং। আদিত্য আগারওয়াল ভাইয়ের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে এসেছে অথচ তাকে কতটুকু দেখানো হলো? প্রমীলা লাহা দারুন ভাবে অভিনয় ফুটিয়ে তুলেছেন কিন্তু মিঠাই মানে যৌথ পরিবার দেখতে আমরা অভ্যস্ত কিন্তু সেটাই যখন এই বিগত দু সপ্তাহে হয়নি দর্শক তাই গল্পটা নেয়নি।

মনোহরায় আবার ফিরে এসেছে মিঠাইরা কিন্তু তারপরেই যে গল্প দেখানো হলো তাতে ফের রেগে গেছেন ভক্তরা। আবার সেই ছদ্মবেশ, রাজস্থানী পুরুষ মহিলা সেজে হল্লা পার্টি নাচ করতে যাবে প্রমিলা লাহার পার্টিতে আর সেখান থেকে প্রমাণ জোগাড় করে আনবে যে প্রমীলা লাহাই সোনা রেখেছিল মনোহরায়। এই বুদ্ধিটা মিঠাইয়ের ছিল, জিনিসটা কতটা বিপদজনক সেটা ভক্তরা আঁচ করতে পারছে অথচ অ্যাসিস্ট্যান্ট পুলিশ কমিশনার হয়ে রুদ্রদা এই প্ল্যানে কী করে সায় দিয়ে দিল কেবলমাত্র একটা পেন ক্যামেরা দিয়ে দিয়ে সেটা কারোর মাথায় ঢুকছেনা।‌ নিজের বউ তো যাচ্ছে শত্রুর বাড়িতে তাহলে নিপা কে ডেকে আলাদা করে রুদ্রর কিছু বলা উচিত ছিল আর সেই দৃশ্য দেখানো যেতেই পারতো।

রুদ্র যে বিয়েটা জোর করে করেছে এ কথা প্রতিদিন স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। সবথেকে বড় কথা এখানে পুলিশ ফোর্স কে ভীষণ অপমান করা হয়। পুলিশ মানেই অযোগ্য আর হল্লা পার্টির মাথায় যত বুদ্ধি রয়েছে। তারা যে ছদ্মবেশে গেছে যে কোন মুহূর্তে তারা ধরা পড়ে যেতে পারত তাই ছদ্মবেশে আরো কয়েকজন পুলিশ দিয়ে দিতে পারতো রুদ্র। সব কাজ সব সময় মিঠাই করেছে এরকম একটা দেখানো হবে, এই জিনিসটা পছন্দ নয় অনেকের।

যে ছদ্মবেশ ে মহিলা সদস্যরা গেছে সেই একই ছদ্মবেশ পিংকিজির বিয়েতে দেখেছি। এতদিন পিংকিজি ছিল না আবার তিনি হঠাৎ করে কোথা থেকে উদয় হলেন কেউ জানে না। লক্ষ্মী কাকিমার শুটিং সেরে চলে এসেছিলেন। দর্শকদের সত্যিই আর দেখতে ভালো লাগছে না এসব। মিঠাইয়ের যে আসল চার্ম সেটাই এই গল্পে নেই। তার একটাই আশঙ্কা করছেন যে হয়তো চ্যানেলে এই ভাবেই ধারাবাহিকটা ধীরে ধীরে খারাপ গল্প দেখিয়ে বন্ধ করার প্ল্যান করছে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending