Connect with us

Bangla Serial

মাতাল স্বামী কিন্তু স্ত্রীর প্রতি কেয়ারফুল! খড়ি অসম্মানিত হতেই রুদ্র রূপ ঋদ্ধির! দর্শক বলছে জাতে মাতাল তালে ঠিক

Published

on

জি বাংলায় মিঠাই যেমন তৎতর করে এগিয়ে চলেছে জনপ্রিয়তার ক্ষেত্রে ঠিক তেমন আরেকটি ধারাবাহিক হল স্টার জলসার গাঁটছড়া। শুরুর দিন থেকে ধারাবাহিক দর্শকদের খুব কাছের এবং প্রিয় হয়ে উঠেছে।

মুখ্য চরিত্র খড়ি এবং ঋদ্ধি ছাড়াও সিংহ রায় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরও দর্শকরা বেশ পছন্দ করে। সেই সঙ্গে নির্মাতারা জমজমাট করে গল্প লিখেছে যার জন্য প্রতিটি চরিত্রই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে গল্পের খাতিরে।

তবে এই মুহূর্তে সমস্ত আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হলো ঋদ্ধি এবং খড়ি। একটা সময় দেখা গিয়েছিল যে নিজের স্ত্রীকে আস্তে আস্তে বিশ্বাস করতে শুরু করেছে ঋদ্ধি। কিন্তু আবার আগের চেহারায় ফিরে গেছে সে। দুজনের মধ্যে আবার ভাঙ্গন ধরেছে।

এর মূল কারণ হলো স্বামীর থেকে অনুমতি বা পরামর্শ না নিয়েই খড়ি নিজের বোন বনির সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দিয়েছে তার দেওর কুণালের। এতেই প্রচন্ড রেগে গিয়েছে ঋদ্ধি কারণ সে তখন বাড়ির বাইরে ছিল। খড়িকে শাস্তি দিতে সে একটি ডিস্কো বারে নিয়ে এসেছে।


সেখানে প্রচুর পরিমাণে মদ গিলেছে ঋদ্ধি আর স্ত্রীকে বলেছে সে একদম ঘৃণা করে নিজের স্ত্রীকে। আসলে ঋদ্ধিমান মনে করছে এই সমস্ত ঘটনাটা প্ল্যান করে ঘটিয়েছে তার স্ত্রী। তাই রেগে রয়েছে সে। কিন্তু সঠিক সময়ে নিজের স্ত্রীকে বিপদ থেকে বাঁচিয়েছে।


মদ খেয়ে যখন পুরোপুরি বেসামাল হয়ে পড়েছে ঋদ্ধি সেই সময় একজন ছেলে তার স্ত্রীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করতে শুরু করে। এটা ঠিক নজরে যায় ঋদ্ধিমানের। সে ছুটে গিয়ে ছেলেটিকে মারধর করে এবং বলে খড়ি তার স্ত্রী। তাই এমন অসভ্য আচরণ যেন আর দ্বিতীয়বার না করে। আর যদি এমনটা করতে দেখে তাহলে তার হাত ভেঙে দেবে ঋদ্ধিমান।

এই দৃশ্য দেখে নেট দুনিয়ায় শোরগোল পড়ে গেছে। দর্শক বুঝে গেছে আসলেই নিজের স্ত্রীকে প্রচন্ড ভালোবাসে এবং সম্মান করে ঋদ্ধিমান সিংহ রায়। জাতে মাতাল হলেও সে ঠিক সময়ে স্ত্রীকে রক্ষা করতে পেরেছে অসম্মানের হাত থেকে। আর কী চাই?

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending