Connect with us

Tollywood

Sudipa Chatterjee: ‘আমি মরে গেলেও আমার চিতায় কটা ফুলের মালা দেওয়া হয়েছে সেটা গুনবেন’, সাধারণ মানুষের ওপর অভিমান হয়েছে সুদীপা চ্যাটার্জির!

Published

on

বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় রান্নার রিয়ালিটি শো জি বাংলার রান্নাঘরের জনপ্রিয় সঞ্চালিকা সুদীপা চ্যাটার্জি। যিনি এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়াতে এক এক করে সমালোচনার শিকার হচ্ছেন। সম্প্রতি ডেলিভারি বয়দের নিয়ে তার এক মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়া তে বিতর্কের সূচনা করে। যার জন্য তাকে নানা রকম কটাক্ষ শুনতে হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। তাকে সম্প্রতি শুনতে হয় যে অহংকারী।

প্রসঙ্গত ,কিছুদিন আগে তার সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি ডেলিভারি বয়দের উদ্দেশ্যে একটি মন্তব্য করেন যা নিয়ে তাকে না না রকম কটাক্ষের শিকার হতে হয়। পরে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিষয়ে ক্ষমা চাইলেও তাকে এখনো নানা রকম ভাবেই নেটিজেনরা সমালোচনা করে। তবে সম্প্রতি তিনি তার অসুস্থতা নিয়ে একটি পোস্ট করে এবং তাকেও তাকে সমালোচিত হতে হয়। যার জন্য তিনি বলেন, ‘আমি মরে গেলেও,আপনারা আমার চিতায় ফুলের মালা গুনবেন। তাতে খুঁত ধরবে’।

 *সম্প্রতি স্বামী অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে শহরের একটি নামে ক্যাফেতে খেতে গিয়েছিলেন সুদীপা। সেই ছবি শেয়ার করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। ক্যাপশনে লেখেন, "Perks of being unwell"। সেই পোস্টেই এরপর একের পর এক মন্তব্য ভেসে আস্তে শুরু করে। তাতেই বেজায় ক্ষেপে গিয়েছেন অগ্নিদেব পত্নী সুদীপা চট্টোপাধ্যায়। ছবিঃ সুদীপা চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ।

সম্প্রতি স্বামী অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে শহরের একটি নামী ক্যাফেতে খেতে গিয়েছিলেন সুদীপা। সেই ছবি শেয়ার করেন তিনি নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং ক্যাপশনে লেখেন, “Perks of being unwell”। সেই পোস্টেই এরপর একের পর এক মন্তব্য ভেসে আস্তে শুরু করে।

 *ছবির কমেন্ট সেকশনে এক নেটিজেনের প্রশ্নের উত্তরে সুদীপা লেখেন, "এক লোকে এত কিছু লিখলেন- কেউ কিন্তু একবারও জিজ্ঞেস করলেন না,”সুদীপা কি হয়েছে তোমার? Unwell কেন? এর থেকে বোঝা গ্যালো- আমি মরে গেলেও,আপনারা আমার চিতায় ফুলের মালা গুনবেন। তাতে খুঁত ধরবেন। বানান ভুল ধরবেন। আমাকে দেখবেন না,তাই তো? কি cruel!” ছবিঃ সুদীপা চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ।
এই ছবির কমেন্ট সেকশনে এক নেটিজেনেরা নানা রকম মন্তব্য করতে শুরু করেন। সেখানে একজনের প্রশ্নের উত্তরে সুদীপা লেখেন, “এক লোকে এত কিছু লিখলেন- কেউ কিন্তু একবারও জিজ্ঞেস করলেন না,”সুদীপা কি হয়েছে তোমার? Unwell কেন? এর থেকে বোঝা গ্যালো- আমি মরে গেলেও,আপনারা আমার চিতায় ফুলের মালা গুনবেন। তাতে খুঁত ধরবে।”

 *তবে প্রশ্নগুলো কি ছিল, কেন সুদীপা এ ভাবে ক্ষেপে গেলেন, তা এখন আর এসবুক পোস্টে গেলে দেখা যাচ্ছে না। কারণ কমেন্ট সেকশন রেস্ট্রিক্ট করে দিয়েছেন সঞ্চালিকা। তবে তিনি যে ভীষণ বিরক্ত, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।  ছবিঃ সুদীপা চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ।
পরবর্তীকালে এই ছবির কমেন্ট সেকশনে যে কি প্রশ্ন উঠে এসেছিল তা দেখতে গেলে তা দেখতে পাওয়া যায় না। তার কারণ সেগুলো তিনি ডিলিট করে দেন। এতটা রেগে গিয়েছিলেন তা তা কারো কাছেই সামনে আসেনি।

 *প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ডেলিভারি বয়দের নিয়ে মন্তব্য করে চরম কটাক্ষের শিকার হন সুদীপা। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয়, সেখানে তাঁকে ক্ষমা পর্যন্ত চাইতে হয়। ছবিঃ সুদীপা চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending