Connect with us

Tollywood

Ya Chandi:জলসার মহিষাসুরমর্দিনী’তে দেবী কৌশিকী সেজেছেন তিয়াশা লেপচা! ‘এখনো জলসার সঙ্গে কাজ শুরু করলো না,মহালয়ায় চান্স পেয়ে গেল,পিহু বাদ?’, হতবাক নেটপাড়া

Published

on

আর কয়েকদিন পরই মহালয়া। আর মহালয়া মানেই মায়ের আগমনের সূচনা হয়ে যায়। সেইদিন থেকেই প্রতিটি বাঙালি ঘরে ঘরে উৎসবের মেজাজ। আকাশে বাতাসে শরতের মেঘ ভেসে বেড়ায় আর সেই সঙ্গে উৎসবের সুর।শুধু বাঙালিরা নয়। সেই সঙ্গে মহালয়া মহামায়া এর আগমনের উদযাপনে মেতে ওঠে টেলিভিশন। বাংলা টেলিভিশনের পর্দায় মহালয়াকে কেন্দ্র করে একের পর এক অনুষ্ঠানের আয়োজন চলতে থাকে। স্টার জলসা জি বাংলা চ্যানেলগুলিতে হয় দুর্গাকে কেন্দ্র করে নিত্য নতুন অনুষ্ঠান।

এবারও তার অন্যথা হবে না। এবার স্টার জলসা মহালয়ার পূর্ণ লগ্নে ঘোষণা করল তাদের নিজস্ব অনুষ্ঠান যার নাম যা চণ্ডী। মা দুর্গার বিভিন্ন রূপ ফুটে উঠবে এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে। আর এক এক রূপে তাক লাগাবেন এক এক নায়িকা।কে নেই সে তালিকায়? সোনামণি সাহা অর্থাৎ মোহর, খড়ি অর্থাৎ সোলাঙ্কি রায়, গুড্ডি অর্থাৎ শ্যামৌপ্তি মুদলি, আলতা ফড়িংয়ের ফড়িং অর্থাৎ খেয়ালী মন্ডলকে দেখা যাবে নানা রূপে। দুর্গার এক একটি রূপ নিয়ে এক এক নায়িকা হাজির হবেন টেলিভিশনের পর্দায়।

তবে সব থেকে বেশি অবাক করার মত বিষয়টি অন্য জায়গায় লুকিয়ে রয়েছে। যা চণ্ডী অনুষ্ঠানের একটি ঝলক সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে এক ঝলক দেখা গেল শ্যামা অভিনেত্রীকে। কৃষ্ণকলি একসময় টেলিভিশনের পর্দায় ধারাবাহিক হিসেবে পরিগণিত হয়েছিল। তার শ্যামা চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিয়াসা রায়।


তিয়াসাকে এবার দেখা যাবে মা দুর্গার এক রূপে। সম্ভবত মা কৌশিকীর চরিত্রে দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে। তবে বিষয়টি সত্যি ভীষণ অদ্ভুত। বহুদিন ধরে টেলিভিশনের পর্দায় দেখা যায়নি এই অভিনেত্রীকে। সেই হিসেবে নতুন কোন ধারাবাহিকের কাজ না করলেও পুরনো চরিত্র হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয় তিনি। আলাদা টিআরপি এনেছিল সেই ধারাবাহিক। আর তাছাড়াও শ্যামা চরিত্রের সঙ্গে দর্শকরা মা দুর্গার রূপের মিল খুঁজে পেতে পারে। হয়তো সেই চিন্তা থেকেই তিয়াসাকে এবার এক নতুন ভূমিকায় দেখা যাবে।

তবে আসল কারণটা বলা যাক। সামনের মাস থেকেই শুরু হবে নীল ভট্টাচার্য এবং তিয়াশা লেপচার নতুন ধারাবাহিক যেটা স্টার জলসায় দেখানো হবে। তাই তিনি স্টার জলসার অংশ হয়ে যাচ্ছেন কিছুদিনের মধ্যেই সেই জন্যেই তাকে রাখা হয়েছে মহিষাসুরমর্দিনী অনুষ্ঠানে। এই যুক্তিতে অনেকের প্রশ্ন যে তাহলে মন ফাগুনের পিহু কোথায়?অনেকে আশা করছেন যে দেবীর বাকি রুপগুলো যেখানে দেখানো হবে সেখানে হয়তো পিহুকে দেখতে পাবেন তবে পিহু যদি না থাকে তাহলে আগুন জ্বলবে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending