Connect with us

Food

গরম ভাতের সাথে একবার খেলেই আঙুল চাটবেন ! আঝ দুপুরেই বানান বাহারি সর্ষে বেগুন ভাপা

Published

on

নিরামিষ রান্না হলেই তার আগের দিন থেকে বাঙালি মেয়েদের মনের কোণে নানা চিন্তা চলতে থাকে যে কিভাবে পেটপুরে এবং মন ভরে খাওয়ানো যাবে বাড়ির লোককে। কারণ সাধারণত বহু মানুষই নিরামিষ রান্না চট করে খেতে চায় না। সেক্ষেত্রে রান্না সুস্বাদু না হলে সমস্যা। আর এই মুশকিল আসান করে দিতে আমরা নিয়ে এসেছি আপনাদের জন্য সম্পূর্ণ ভিন্ন স্বাদের একটি রেসিপি।

আপনাদের জন্য দেওয়া হলো বাহারি সর্ষে বেগুন ভাপা রেসিপি। বানানো খুবই সহজ এবং খুব কম উপকরণ লাগে এটি বানাতে। সেই সঙ্গে গরম ভাতে দুপুরবেলা জমে যাবে পেটপুজো।

উপকরণ: বেগুন

কাঁচালঙ্কা

টকদই

নারকেল কোরা

হলুদ গুঁড়ো

লঙ্কাগুঁড়ো

পোস্ত

সর্ষে

পরিমাণ মত নুন

সামান্য চিনি

রান্নার জন্য সর্ষের তেল

পদ্ধতি: বেগুন ভালো করে পরিষ্কার করে নিয়ে সেগুলোকে লম্বা লম্বা টুকরো করে কেটে নেবেন। বেগুনের মধ্যে একে একে নুন, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো ও চিনি দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নেবেন। কড়ায় তেল দিয়ে গরম হয়ে গেলে মশলা মাখানো বেগুন আধভাজা মত করে ভেজে তুলে রাখুন। রান্নার জন্য একটা পেস্ট তৈরী করতে হবে। এর জন্য একচামচ সর্ষে, পোস্ত ও নারকেল কোরা নিয়ে তার সাথে চারটে মত কাঁচালঙ্কা নিয়ে মিক্সিতে বেটে পেস্ট বানান। মশলা পেস্ট তৈরী হয়ে গেলে তার মধ্যে এক চামচ ফেটিয়ে নেওয়া টক দই, দেড় চামচ মত কাঁচা সর্ষের তেল ও সামান্য নুন দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নেবেন।

মিশ্রণটা বেশ গাঢ় থাকলে পরিমাণ মত জল দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নেবেন। একটা স্টিলের টিফিনের মধ্যে মশলা নিয়ে তাতে আধভাজা বেগুনগুলোকে রেখে টিফিন বন্ধ করে দেবেন। একটা কড়ায় বেশ কিছুটা জল নিয়ে তার মধ্যে টিফিন বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে জল ফুটতে থাকা কালীন ১০-১২ মিনিট ভাপিয়ে নেবেন। ১০-১২ মিনিট পর ঢাকনা খুলে নেবেন। রেডি হয়ে গেলো বাহারি সর্ষে বেগুন ভাপা। গরম ভাতে দারুন লাগবে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending